রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২২ মুহররম ১৪৪১

৭৩

বিশ্বজুড়ে ধর্মানুসারীদের ওপর নিপীড়ন বাড়ছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

প্রকাশিত: ১৮ জুলাই ২০১৯  

বিশ্বজুড়ে ধর্ম এবং ধর্মের অনুসারীদের ওপর নিয়ন্ত্রণ বাড়ছে বলে সাম্প্রতিক এক জরিপে বেরিয়ে এসেছে। এতে দেখা গেছে, শুধু স্বৈরতান্ত্রিক দেশেই নয়, ইউরোপের গণতান্ত্রিক দেশগুলোতেও এমন নিয়ন্ত্রণ বেড়ে চলেছে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান পিউ রিসার্চের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, বিশ্বের ১৪০টি দেশে ইসলাম ধর্মের অনুসারীরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। ২০০৭ সাল থেকে ২০১৭ সাল- এই ১০ বছরের তথ্য নিয়ে গবেষণা চালিয়ে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পিউ। এক্ষেত্রে আমলে নেয়া হয়েছে রাষ্ট্রের বিভিন্ন আইন, নীতি এবং কর্মকর্তাদের নানা কার্যক্রম।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০০৭ সাল থেকে ধর্মকেন্দ্রীক সামাজিক অস্থিরতা, সহিংসতা ও সংঘাত বেড়ে চলেছে। ২০১৭ সালের সবশেষ তথ্যে দেখা গেছে, ৫২টি দেশ ধর্মের ওপর সরাসরি নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছে। ২০০৭ সালে এ সংখ্যা ছিল ৪০।

এসব দেশের মধ্যে প্রথম সারিতে আছে- চীন ও রাশিয়া।

পিউ রিসার্চ সেন্টারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০০৭ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত সবচেয়ে বড় পরিবর্তন এসেছে ইউরোপের রাজনীতিতে। সেখানে ইসলামবিদ্বেষী রাজনীতি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। এই সময়ের মধ্যে মুসলিম নারীদের বোরকা ও অন্যান্য পর্দার মতো ধর্মীয় পোশাকের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে ইউরোপের ২০টি দেশে। অথচ ২০০৭ সালে কেবল পাঁচটি দেশে ছিল এমন নিষেধাজ্ঞা।

অস্ট্রিয়ায় জনসম্মুখে পুরো মুখ ঢাকা পোশাকে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। জার্মানিতে মোটরকার চালক এবং সরকারি চাকরিজীবীদের মুখ ঢাকা পোশাক নিষিদ্ধ করা হয়েছে। স্পেনের কিছু পৌরসভা বোরকা নিষিদ্ধ করেছে। সুইজারল্যান্ডে গণভোটে ভোটাররা নতুন কোনো মিনার তৈরিতে নিষেধাজ্ঞায় সায় দিয়েছেন।

পিউ রিসার্চ সেন্টার জানিয়েছে, জার্মানিতে অনেক অভিবাসনপ্রত্যাশীকে খ্রিস্টধর্ম গ্রহণের জন্য চাপ দেয়া হয়েছে। এমনকি খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করা করলে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর হুমকিও দেয়া হয়েছে।

এশিয়ায় উঠে এসেছে উইঘুর ও রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর নির্যাতনের কথা। চীনে পুনর্শিক্ষা কার্যক্রমের নামে বিভিন্ন কেন্দ্রে হাজার হাজার মুসলিম উইঘুরকে নির্যাতন করা হচ্ছে। মিয়ানমারে সামরিক-বেসামরিক শক্তি রোহিঙ্গাদের নির্যাতন করে বাড়িঘর ছেড়ে পালাতে বাধ্য করছে বলে দেখানো হয়েছে প্রতিবেদনে।

রাজবাড়ী প্রতিদিন
রাজবাড়ী প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর