রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২২ মুহররম ১৪৪১

১৫১

শীতের শুরুতে রাজবাড়ীতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন লেপ-তোষকের কারিগররা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০১৮  

রাজবাড়ীতে শীতের আমেজ শুরু হয়ে গেছে। শীতের আগমনে বাড়ছে লেপ-তোষকের কদর। বিভিন্ন দোকান ঘুরে দেখা গেছে লেপ-তোষক বানানোর কাজে এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কারিগরেরা।

 শীতের আমেজ শুরু হলেও এখনো ক্রেতারা লেপ-তোষক তৈরির দোকানগুলোতে সেই ভাবে আসছে না। শীত যত বেশী পড়বে তত বিক্রি ভালো হবে। তবে এসব তৈরি করতে তুলাসহ যেসব মালামালের প্রয়োজন হয় তার দাম আগের বছরের মতই আছে।

 কারিগরদের লেপ প্রতি ২০ টাকা করে মজুরী বেড়েছে ও তোষক প্রতি ৫০ পয়সা করে বেড়েছে। সে কারণে খরচও একটু বেড়েছে। লেপ তোষকের দাম গেল বছরের চেয়ে একটু বেশি। মাঝারি আকারের একটি লেপ তৈরি করতে পাঁচ কেজি তুলার প্রয়োজন। ৫ কেজি তুলার দাম ৫০০ টাকা। ১০ গজ কাপড়ের দাম ৩৫০ টাকা, সেলাই খরচ লাগে ২০থেকে ৩০ টাকা। আর কারিগরের মজুরি লাগে ১৭০ টাকা। সব মিলিয়ে একটি লেপ তৈরি করতে এক হাজার টাকা খরচ হয়। সেটি বিক্রি হয় এক হাজার তিনশ’ টাকা থেকে এক হাজার পাঁচশ’ টাকা পর্যন্ত। কোয়ালিটি বুঝে এক একটার আলাদা আলাদা দাম যে ভালো জিনিস নিবে তার দাম একটু বেশিই দিতে হবে।


এবার লেপ বিক্রি হচ্ছে সর্বনিম্ন ৬০০ থেকে সর্বোচ্চ ১২০০ টাকা, তোষক বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ১৫০০ টাকা, জাজিম বিক্রি হচ্ছে ২০০০ টাকা থেকে ২৫০০ টাকা করে। কোয়ালিটি বুঝে দাম।

 যারা ভালো কাজ করতে পারে তারা ৪/৫টা লেপ সেলাই করতে পারে। এক একটির মজুরী সর্বনিম্ন ১০০ টাকা সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা।

কিন্তু সবচেয়ে বড় সমস্যা হল এর কাজ ১২ মাস থাকে না। বছরের অনেকটা সময়  কারীগরেরা বসে থাকতে হয়।এ সমস্যা থেকে উত্তরনে কাজ করছে স্থানীয় প্রশাসন।সারা দেশে সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় এ  এলাকার কারীগরদের সিজনাল কাজের পাশাপাশি সারা বছর যাতে কাজ করতে পারে সেজন্য বিভিন্ন প্রশিক্ষন ও অনুদানের ব্যাবস্থা করেছে।
 

রাজবাড়ী প্রতিদিন
রাজবাড়ী প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর