শুক্রবার   ১৮ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ২ ১৪২৬   ১৮ সফর ১৪৪১

১৪

সানাইয়ের ‘আঙ্গুর ফল টক’!

বিনোদন ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

সানাই মাহবুব। নামটি শুনলেই বুকের ভেতর কেমন যেন মোচড় দিয়ে ওঠে যুব সমাজের। অনলাইন দুনিয়ায় তার রয়েছে ব্যাপক আধিপত্য। সম্প্রতি নানা প্রসঙ্গ নিয়ে তিনি মুখোমুখি হলেন অনন্ত আযান’র।   

শুরুতেই দিলখোলা হাসি, প্রাণ জুড়িয়ে যায়। হাসিচ্ছ্বলেই বললেন, আপনি আমার সঙ্গে কথা বলছেন-এটা নিয়ে তো সমাজের মানুষ নানান কথা বলবে। নানান মজার কেচ্ছা রটাবে। বলবে কী উদ্দেশ্যে এই কথোপকথন? কিন্তু আমি এসব কিছুতেই পরোয়া করিনা। আমি কাছের মানুষ, ভালো লাগার মানুষ কিংবা সংবাদ জগতের মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রাখবো।  

তিনি বলেন, যারা আমাকে খারাপ বলছে তারাই আবার সামনে আসলে আমার সাথে এসে সেলফি তুলতে চায়। আসলে তাদের অবস্থাটা হয়েছে ‘আঙ্গুর ফল টক’ এর মত। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার স্বামী কে তা নিয়ে চলছে নানান জল্পনা-কল্পনা, এ নিয়ে আপনার মন্তব্য কী-প্রাণোচ্ছ্বল হাসি আবারও। বললেন, অবস্থাটা এমন যে-যার বিয়ে তার খোঁজ নেই, পাড়া-পড়শির ঘুম নেই। আমি বলেছিলাম যে, আমার স্বামী নিয়ে সবাইকে বিস্তারিত জানাবো। কিন্তু কিছুতেই যেন ওদের তর (অপেক্ষা) সইছে না। যাইহোক এবার বলি মূল ঘটনাটা। কেন আমি দিচ্ছিনা স্বামীর পরিচয়। আসলে আমার স্বামীর প্রাক্তন স্ত্রী নানা ধরণের সমস্যা করছেন আমাদের জীবনে। এমনকি কিছু বিষয় নিয়েও তিনি আইনের আশ্রয় নেয়ার হুমকি দিচ্ছেন।  যা একেবারেই অনুচিত। কারণ একজনের একাধিক পছন্দ থাকতেই পারে। আমার স্বামীও যেমন আমাকে পছন্দ করে বিয়ে করেছেন। এই সকল কারণে আমি এখনই বিস্তারিত জানাতে চাচ্ছিনা। তবে হ্যাঁ, শিগগিরই ব্যাপারটি নিয়ে আমি জনসম্মুখে হাজির হবো। 

আলোচিত এই মডেল ও চিত্রনায়িকা জানালেন নিজের সাম্প্রতিক ব্যস্ততার কথাও। তিনি বলেন, অল্প কিছুদিনের ভেতর আমার অভিনীত সিনেমা ‘ময়নার ইতিকথা’ মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এটি পরিচালনা করেছেন বাবু সিদ্দিকী। এছাড়া শেষ হয়েছে ৬টি মিউজিক ভিডিও এর কাজ।    

বেশ কিছুদিন আগে ‘দেয়াশলাই’ শিরোনামে একটি আইটেম গান মুক্তি পায় সানাইয়ের। গানটি ইন্ডাস্ট্রিতে বেশ আলোচনা তোলে। তাই এখন বেশ বেছে বেছেই কাজ করছেন। কাজ পেলেই লুফে নিচ্ছেন না। গল্প-চিত্রনাট্য-নির্মাতা বুঝে তারপর কাজের জন্য মনস্থির করছেন।

সম্প্রতি তিনি যৌন হয়রানির স্বীকার হয়েছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, একজন লোক নিজেকে সংবাদকর্মী হিসেবে পরিচয় দিয়ে আমাকে অনেক বাজে কথা বলেছে। শুধু তাই-ই নয়, কুপ্রস্তাব পর্যন্ত দিয়েছে। এ কারণে বাধ্য হয়ে আমি আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

বাস্তবজীবনে নিজেকে ‘সাধারণ’ উল্লেখ করে সানাই বলেন,
 দর্শকরা একেকজন আমাকে একেক রুপে দেখে। তবে সেগুলো কখনোই আমি নই। কারণ সেগুলো শুধুই চরিত্র। আর চরিত্রের প্রয়োজনেই আমি সেই রুপগুলো ধারণ করি। বাস্তব জীবনে আমি সম্পূর্ণ সাধারণ এবং ধৈর্য্যশীল একজন মানুষ। খুব সহজে রাগি না। চাই সবার সঙ্গেই হাসিমুখে ব্যবহার করতে। কিন্তু অনেক সময় ধৈর্য্যের বাঁধ ভেঙে যায়, বেসামাল হয়ে যাই। এটা শুধু আমি নই, সবার ক্ষেত্রেই হয়।  

 

আজকের এই অবস্থানে আসতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে সানাইয়ের। অনেক বাঁধা-বিপত্তি অতিক্রম করতে হয়েছে। অথচ কেউ সেসবের খোঁজ রাখেনা। সবাই থাকে ট্রল নিয়ে ব্যস্ত।  এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসলে যার ব্যাথা সেই বোঝে, অন্য কেউ বোঝেনা। আমাকে যে কতটা কষ্ট করে আজকের অবস্থানে আসতে হয়েছে সে খবর কেউ রাখলো না। আর রাখবেই বা কেন? তাদের কী অত সময় আছে? তারা তো ব্যস্ত আমার ছবি নিয়ে আমার আচার-ব্যবহার নিয়ে ট্রল করতে। তারপরেও বলবো, সবার জন্য শুভকামনা। ভালোবাসা। 

কোন ধরণের কাজের প্রতি গুরুত্ব বেশি দেন, এমন প্রশ্নের জবাবে সানাই বলেন, কাজের অফার তো কম-বেশি প্রতিদিনই পাই। কিন্তু গল্পের প্লট ও নিজের চরিত্র পছন্দ না হলে সেগুলো স্ট্রেইট ‘না’ করে দিই। তবে হ্যাঁ, ভালো গল্প পেলে কোন নির্দিষ্ট গণ্ডিতে নিজেকে আটকে রাখবো না। কাজ করবো চলচ্চিত্র, নাটক এবং মিউজিক ভিডিওতে সমানতালে।

আর ওয়েব সিরিজ? প্রত্যুত্তরে জানালেন, 
ভালো গল্পের অফার পাইনি, পেলে করবো।  

আপনার দৈহিক গড়ন নিয়ে নানাজন প্রশ্ন তোলেন, সে ব্যাপারে যদি কিছু বলতেন- 
হ্যাঁ, হই। কিন্তু খারাপ লাগে মানুষের ছোট মানসিকতা দেখলে-২০১৯ সালে এসেও মানুষ কারো পোশাক, কারো দেহ নিয়ে কথা বলে। আমি যা করেছি তা হয়তো বিদেশি কোন তারকা করলে এটা নিয়ে এতো মাতামাতি হতো না। কিন্তু হয়তো আজ বাঙালি বলেই এতো কথা। আমি চাই মানুষ আমাকে আমার কাজের মাধ্যমে বিবেচনা করুক। 

রাজবাড়ী প্রতিদিন
রাজবাড়ী প্রতিদিন