বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৭ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’র বিচারক সুস্মিতা সেন

বিনোদন ডেস্ক:

রাজবাড়ী প্রতিদিন

প্রকাশিত : ০১:৫৭ পিএম, ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রোববার

‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার পর এবার বাংলাদেশে শুরু হচ্ছে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’। ভারতে এই প্রতিযোগিতা দীর্ঘদিন ধরেই আয়োজিত হচ্ছে, তবে বাংলাদেশে এবারই প্রথম ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালেতে উপস্থিত থাকবেন ১৯৯৪ সালের ‘মিস ইউনিভার্স’ ও বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন। তিনি হবেন অতিথি বিচারক। বিজয়ীকে মুকুট পরিয়ে দেবেন তিনি। আজ শনিবার বিকেলে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই আয়োজনের ঘোষণা দেওয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান।

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান রেজওয়ান বিন ফারুক বলেন, ‘আমরা খুব চমৎকারভাবে এই অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য সব রকম চেষ্টা করব। সুস্মিতা সেন এরই মধ্যে আমাদের নিশ্চিত করেছেন। তিনি বাঙালি, আমাদের অনুষ্ঠানে তিনি আসছেন। তার নিজের চমৎকার ব্যাকগ্রাউন্ড রয়েছে। এখানে তিনি নিজের অভিজ্ঞতার কথা বলবেন। যিনি মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ হবেন, এ সময় তিনি সুস্মিতা সেনের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় কিছু পরামর্শও পেয়ে যাবেন।’

এবারের ‘মিস ইউনিভার্স’ প্রতিযোগিতার মূল স্লোগান ‘আমার আত্মবিশ্বাস, আমার সৌন্দর্য’। এ ব্যাপারে রিজওয়ান বিন ফারুক বলেন, ‘বাংলাদেশের অন্যতম সেরা সুন্দরী, বুদ্ধিমতী, অভিজাত, মেধাবী ও আত্মবিশ্বাসী তরুণীদের বিশ্বের দরবারে তুলে ধরবে মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ।’

প্রতিযোগিতা নিয়ে রিজওয়ান বিন ফারুক বলেন, ‘বাংলাদেশের নারীদের জন্য এটি হবে এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যেখানে তারা তাঁদের চলার পথে নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবিলাসহ নানামুখী সামাজিক কার্যক্রমের মাধ্যমে মানবতার সেবায় এগিয়ে আসবে। বর্তমানে নারী নির্যাতন আমাদের সমাজের অন্যতম গুরুতর সমস্যা। এই পদক্ষেপের মাধ্যমে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হবে। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের একটি বিষয়, এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের একজন প্রতিনিধি মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তুলে ধরবেন এবং প্রমাণ করবেন বাংলাদেশের নারীরাও বিশ্বের যেকোনো দেশের নারীদের মতোই আত্মবিশ্বাসী।’

প্রতিযোগিতার বিচারকাজের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘বিচারকেরা সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে বিচার কাজ করবেন। আমরা যারা প্রতিষ্ঠানটি চালাচ্ছি, সেখানে আমাদের কোনো হাত থাকবে না।’

প্রতিযোগিতার টাইটেল স্পনসর ফ্লোরা ব্যাংক। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুস্তাফা রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এমন একটি আয়োজনের অংশ হতে পারা বিরাট সম্মানের। এর মাধ্যমে মূলত নারীর ক্ষমতায়ন ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে চাই আমরা।’

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় কে কে বিচারক হচ্ছেন? রেজওয়ান বিন ফারুক জানান, ফ্যাশন ডিজাইনার টুটলি রহমান, ক্রিকেট তারকা আতাহার আলী খান, পালস্ হেলথ কেয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবাবা দৌলা, অভিনেত্রী ও চিত্রশিল্পী বিপাশা হায়াতের সঙ্গে প্রাথমিক আলাপ হয়েছে। শিগগিরই সবাইকে চূড়ান্ত করা হবে। আর এই প্রতিযোগিতার বিভিন্ন রাউন্ড নিয়ে তৈরি পর্বগুলো আরটিভিতে অক্টোবর প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রচার করা হবে।

মাসখানেক আগে থেকে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার নিবন্ধনকাজ শুরু হয়। প্রাথমিক বাছাইয়ে অংশ নেওয়ার জন্য ২৯ আগস্ট পর্যন্ত ৮ হাজার প্রতিযোগী নাম নিবন্ধন করেছেন। নিবন্ধন শেষে শুরু হবে অডিশন রাউন্ড। এরপর মূল প্রতিযোগিতা। এর মাঝেই থাকবে গ্রুমিং ও ফিল্মিং রাউন্ড। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন ধাপ শেষে আগামী ২৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে। বসুন্ধরার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে আয়োজন করা হবে অনুষ্ঠানটি।

১৯ ডিসেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে ‘মিস ইউনিভার্স’ প্রতিযোগিতার ৬৮তম আসর। এবার এই সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’।